আজঃ ২রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ - ১৭ই আগস্ট, ২০১৯ ইং - রাত ৯:১৭

খেলাধুলা ভালবেসে ফুটবলকন্যাদের পাশে মালা রাণী

Published: জানু ১১, ২০১৯ - ১:১৬ অপরাহ্ণ

আবুল হাশেম,ধোবাউড়া(ময়মনসিংহ) থেকে ঃ
কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী অধ্যাপক মালা রাণী সরকার ছাত্রজীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতি করেন।বর্তমানে ধোবাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এবং এর আগে ১৯ বছর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।তিনি এবার জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনে সদস্য হতে চান। ইতোমধ্যে লবিং তদবির শুরু করেছেন। রাজনীতির পাশাপাশি সমাজসেবামূলক বিভিন্ন কার্যক্রমও করে থাকেন মালা সরকার।ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি,স্বাশিপসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত আছেন।সামাজিক কার্যক্রমের পাশাপাশি তিনি খেলাধুলাও ভালবাসতেন। নিজে ফুটবল না খেললেও ফুটবলের প্রতি ছিল ভালবাসা। কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের মেয়েরা গ্রীষ্মকালীণ ক্রিড়া প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ফুটবল খেলা শুরু করলে নিজেকে ফুটবলের সাথে জড়িয়ে রাখেন মালা রাণী সরকার। মেয়েদের প্রত্যেকটি খেলা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে স্টেডিয়ামে বসে দেখেন তিনি।বর্তমানে কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১২ জন খেলোয়ার জাতীয় নারী ফুটবল দলের সদস্য।ফুটবলার মেয়েদের সাথে মালা রাণীর রয়েছে নিবিড় সম্পর্ক। সবসময় মেয়েদের খোঁজ খবর নেওয়া,খেলার মাঠে উপস্থিত থেকে উৎসাহ প্রদান,দরিদ্রদের আর্থিক সহায়তা প্রদানসহ বিভিন্নভাবে পাশে থাকেন তিনি। উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে মেয়েদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি,আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের মাধ্যমে ফুটবল খেলাকে এগিয়ে নেওয়া ও মেয়েদের জন্য অনুদান নিয়ে আসেন। মোবাইল ফোনে সবসময় মেয়েদের খোঁজ খবর নেন এমনকি কেউ অসুস্থ হলে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন তিনি। এসব কারনে মেয়েরাও তাদের শিক্ষক মালা রাণী সরকারকে অনেক ভালবাসেন। বর্তমানে মালা রাণী সরকার কলসিন্দুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী অধ্যাপক এবং নারী ফুটবল টিমের টিম ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।কথা হয় তার সাথে, তিনি জানান ফুটবল না খেললেও খেলার প্রতি ছিল বাড়তি আগ্রহ,তাই ফুটবলার মেয়েদের পাশে আছেন এবং সবসময় অবসরে সেবামূলক কাজ করতে চান। এ ব্যাপারে জাতীয় নারী ফুটবল দলের সদস্য শামসুন্নাহার(জুনিয়র) জানায় মালা ম্যাডাম আমাদের অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করেন,আমরাও ওনাকে শ্রদ্ধা করি,ভালবাসি।একই কথা বলেন মেসিখ্যাত ফুটবলার তহুরা। তার কথায় মালা রাণী সবসময় আমাদের পাশে থাকের এতে আমরাও ফুটবল খেলার অনুপ্রেরনা পায়।

এ জাতীয় আরো খবর